31 নং জাতীয় সড়কে যানচলাচল ব্যবস্থা খতিয়ে দেখলেন উত্তরবঙ্গের ট্রাফিক আইজি

বেশ কয়েকদিন টানা বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত জনজীবন। বিভিন্ন এলাকা জলমগ্ন। চরম দুর্ভোগে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। কোথাও কোথাও তৈরি হয়েছে বন্যা পরিস্থিতি।

এমতাবস্থায় ৩১ নম্বর সি জাতীয় সড়কে যানচলাচলে কোনো সমস্যা তৈরি হচ্ছে কিনা তা উপর নজর রাখছে পুলিশ।

জাতীয় সড়কে যানচলাচল ব্যবস্থা সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে সোমবার উত্তরবঙ্গের আইজি, ট্রাফিক (সেফটি) দেবাশিস বড়াল অসম-বাংলা সীমানায় আসেন।

15/07/2019 তারিখ, বিকেলে সোজা অসম-বাংলা  সীমানার পাকরিগুড়িতে চলে যান আইজি ট্রাফিক। সেখানকার নাকা চেকিং পয়েন্টের দায়িত্বে থাকা পুলিশ কর্মীদের সাথে কথা বলেন। জাতীয় সড়কে যানবাহন চলাচলে কোনো সমস্যা কিনা তার খোঁজ নেন তিনি।

উল্লেখ্য, অসম-বাংলা সীমানার পাকরিগুড়ি হয়েই উত্তর-পূর্বাঞ্চলের রাজ্য গুলির যানবাহন গুলি চলাচল করে। জলের কারণে জাতীয় সড়কের কোথাও যানবাহন চলাচল বন্ধ হলে বিপর্যস্ত হয়ে পড়বে জনজীবন।

উত্তর-পূর্বাঞ্চলের রাজ্য গুলির সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে। যদিও পুলিশ সূত্রে খবর, এখনও পর্যন্ত এ ধরণের পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়নি। তবে বিষয়টির উপর পুলিশের পক্ষ থেকে নজর রাখা হচ্ছে।

পাকরিগুড়ি নাকা চেকিং পয়েন্ট থেকে বারবিশা ফিরে এসে বারবিশা পুলিশ ফাঁড়িতে কুমারগ্রাম থানার আইসি নরেন্দ্র কালিকোটে, বারবিশা পুলিশ ফাঁড়ির ওসি অমিত শর্মা, বারবিশার ট্রাফিক ওসি সুনীলকুমার রায় সহ অন্যান্য পুলিশ আধিকারিকদের সাথে আলোচনায় বসেন আইজি ট্রাফিক দেবাশিস বড়াল।

এরপর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে আইজি বলেন, বৃষ্টি খুব বেশি হচ্ছে। বন্যার জন্য রাস্তাঘাটে যান চলাচলের কোনো অসুবিধা হচ্ছে কিনা বা যদি যানচলাচলে কোনো অসুবিধা হয় তাহলে কি কি পদক্ষেপ নেওয়া যেতে পারে সেসব বিষয় খতিয়ে দেখতে এসেছি।

দ্রুতই ৩৪ হাজার শূন্যপদে নিয়োগ, বিধানসভায় ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে এই মুহূর্তে মোট ৩৩ হাজার ৬৮৭ টি শূন্যপদ রয়েছে। খুব দ্রুতই ওই সব শূন্য পদে নিয়োগ করা হবে। বুধবার বিধানসভায় এমনটাই জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। এদিন বিধানসভায় প্রশ্নোত্তর পর্বে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্য সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে শূন্য পদ নিয়ে প্রশ্ন উঠলে তিনি এই তথ্য জানান। সরকারের তরফে লিখিত উত্তরে বিধানসভায় আরও জানানো হয়, প্রবীণ কর্মচারীরা অবসর গ্রহণের কারণেই প্রচুর শূন্যপদ তৈরি হয়েছে। গত কয়েক বছরে উল্লেখযোগ্য সংখ্যায় নিয়োগ হওয়া সত্ত্বেও ক, খ, গ ও ঘ শ্রেণিতে শূন্য পদ বেড়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় চৌত্রিশ হাজার। এর মধ্যে ১৫,১৬০ টি শূন্য পদ তফসিলি জাতি, উপজাতি এবং অন্যান্য অনগ্রসর শ্রেণির জন্য সংরক্ষিত। তফসিলি জাতির জন্য সংরক্ষিত রয়েছে ৭ হাজার ৪১১ টি আসন, তফসিলি উপজাতির জন্য ২০২১টি আসন এবং অন্যান্য অনগ্রসর শ্রেণির জন্য ৫,৭২৮ টি আসন। এ ছাড়াও ১,৩৪৭ টি পদ প্রতিবন্ধীদের জন্য সংরক্ষিত রাখা হয়েছে। অসংরক্ষিত শূন্যপদ রয়েছে ১৮, ৫২৭ টি।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আর্থিক ভাবে অনগ্রসর শ্রেণির মানুষের জন্য সরকারি চাকরিতে ১০ শতাংশ আসন সংরক্ষিত রাখা হবে। তফসিলি জাতি, উপজাতি ও অন্যান্য অনগ্রসর শ্রেণির জন্য সংরক্ষিত আসনের উর্ধ্বে ওই সংরক্ষণ দেওয়া হবে। তবে সেই সংরক্ষণের আওতায় কত শূন্য পদ থাকবে তা এ দিন বিধানসভায় স্পষ্ট ভাবে জানায়নি সরকার।‌

ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপে ছবি ডাউনলোডে সমস্যা, কী জানাল সংস্থা?

হোয়াটসঅ্যাপে ডাউনলোড করতে গেলে স্ক্রিনে ভেসে উঠছে, ‘দুঃখিত ডাইনলোড সম্ভব নয়’। ফেসবুকে সমস্যায় পড়েছেন? ছবি বা অন্য পরিষেবা ডাউনলোড করতে পারছেন না। শুধু আপনার সমস্যা নয়, বরং জগতজোড়া একইসমস্যায় ভুক্তভোগী তামাম ব্যবহারকারীরা। টুইটারে আছড়ে পড়ছে ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের নালিশ।

ইউরোপ, আফ্রিকা ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারের সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন ব্যবহারকারীরা। ভারতে ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ থেকে ছবি বা অডিয়ো ডাউনলোড করতে পারছেন না ব্যবহারকারীরা। এমনকি ছবি আপলোডও করতে অক্ষম হচ্ছেন তাঁরা। একই অবস্থা ইনস্টাগ্রামেরও।

জানা গিয়েছে, ফেসবুকের সার্ভারে দেখা দিয়েছে সমস্যা। ওই সার্ভারটির মাধ্যমে ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ ও ইনস্টগ্রামের পরিষেবা প্রদান করে সংস্থা।

টুইটারে ব্যবহারকারীদের ফেসবুকের বার্তা, ছবি, ভিডিয়ো পাঠাতে ও ডাউনলোড করতে সমস্যায় পড়ছেন ব্যবহারকারীরা। এব্যাপারে আমরা অবগত। পরিষেবা বিঘ্নিত হওয়ার জন্য দুঃখিত। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছি।

মানবিকতার নজির পুলিশের

মঙ্গলবার ভোর রাতে দক্ষিণ ২৪ পরগনার ফলতার বাণিজ্য কেন্দ্রের কাছে রামনগরে ,একটি ট্রাকের খালাসির পায়ের উপর দিয়ে ট্র্যাক চলে যায় । রক্তাত্ব অবস্থায় পড়েছিল খালাসি ,দেখেও দেখছিলো না পথচারীরা । শেষ পর্যন্ত খবর যায় রামনগর থানায় , খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সেখানকার পুলিশ রা এসে তাকে হাসপাতলে ভর্তি করে । আপাতত হাসপাতালেই চিকিত্‍সাধীন রয়েছে ওই খালাসী ।

আলিপুর আবহওয়া দপ্তরের তরফ থেকে এই বার্তা! সতর্ক থাকুন

শহরজুড়ে আসতে চলেছে ভারী বৃষ্টি। আলিপুর আবহওয়া দপ্তরের তরফ থেকে জানানো হয়েছে নিম্নচাপের প্রভাবে রাজ্যের বহু জেলায় বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ভারী বজ্রবিদ্যুত্‍ সহ বৃষ্টি হবে পূর্ব মেদিনীপুর ও দক্ষিন ২৪ পরগণায়। বজ্রবিদ্যুত্‍ সহ বৃষ্টির পাশাপাশি বইবে ঝরো হাওয়া। আবহওয়া দপ্তর থেকে খবর ঘণ্টায় ৫০ কিমি বেগে বইতে পারে হাওয়া। মত্‍স্যজীবীদের সমুদ্রে যাওয়ার বারন করেছে আলিপুর আবহওয়া দপ্তর।

একটা অ্যালোভেরা গাছ পাল্টে দিতে পারে আপনার জীবন! অর্থভাগ্য তুঙ্গে রাখতে কয়েকটি টিপস

গাছ লাগানোর দাবি নিয়ে এই মুহূর্তে সরব গোটা দেশ। ক্রমেই বেড়ে চলা জলসংকটকে কেন্দ্র করে গাছ আরও বেশি করে লাগানোর দাবি উঠছে বিভিন্ন মহল থেকে।

গাছ লাগানোর দাবি নিয়ে এই মুহূর্তে সরব গোটা দেশ। ক্রমেই বেড়ে চলা জলসংকটকে কেন্দ্র করে গাছ আরও বেশি করে লাগানোর দাবি উঠছে বিভিন্ন মহল থেকে। এদিকে, শাস্ত্রজ্ঞরাও বলছেন, এক একটি গাছ পাল্টে দিতে পারে অনেকের জীবন। গাছ বাড়িতে রাখা যে কতটা শুভফলদায়ক তা একাধিক উদাহরণ স্পষ্ট করে দেয়। জ্যোতিষশাস্ত্র অনুযায়ী একাধিক গাছের একাধিক গুণের জন্য আর্থিকভাগ্য তুঙ্গে থাকতে পারে অনেকেরই।

অ্যালোভেরা

যেকোনও বাড়িতে গেলেই দেখ যায়, সেই বাড়ির ছাদে বা রয়েছে অ্যালোভেরা গাছ। বাস্তুশাস্ত্রবিদরা বলছেন,অ্যালোভেরা গাছ যদি বাড়িতে রাখা যায় তাহলে অনেকাংশে উন্নতি হতে পারে বাড়ির মালিকের। এই গাছ স্বাস্থ্য থেকে অর্থভাগ্য সুখকর পরিস্থিতি রাখে বলে দাবি জ্যোতিষশাস্ত্রবিদদের। তবে গাছটিকে রাখতে হবে পূর্বদিকে কিংবা উত্তরদিকে ।